Connect with us

গল্প

বিশ্বাস || ফারিসা মাহমুদ

Published

on

বিশ্বাস || ফারিসা মাহমুদ

দিশা বসে অপো করছে। এক হুজুরের সঙ্গে দেখা করতে এসেছে ওরা। দিশা আর দিশার শাশুড়ি। দর্শনার্থীদের অপোর জন্যে দুইটা বড় বড় রুম। একটা মহিলাদের, একটা পুরুষদের। মহিলার সংখ্যাই বেশী। মহিলাদের মধ্যে আবার প্রায় সবাই বোরখা বা হিজাব পরে এসেছে। দিশা শুধু সালোয়ার কামিজ আর ওড়না দিয়ে মাথায় ঘোমটা দেয়া। তাতেই দিশার কানে শোঁ শোঁ শব্দ হচ্ছে। কথাবার্তা কিছুই বুঝতে পারছে না। ওর শাশুড়ির পরামর্শে মাথায় ঘোমটা তুলে দিতে হয়েছে।

এই হুজুর বিশেষ কারণে বিখ্যাত। উনার তদবিরে নিঃসন্তান মহিলাদের সন্তান হয়। উনি চেলেঞ্জ করে পত্রিকায় বিজ্ঞাপন দেন। দিশা আর্টসের ছাত্রী ।বিজ্ঞান তেমন বুঝে না। ঝাড় ফুক, পানি পরায় যে অন্তত বাচ্চা হয় না এইটুকু সে জানে। তবু সে এসেছে। বিচ্ছিরি ঘিনঘিনে একটা অনুভুতি নিয়ে সে বসে আছে । মুখে থুথু উঠে আসছে। ‘থু’ করে আসে পাশেই থুথু ফেলতে ইচ্ছে করছে।এইটা সে করতে পারছে না কারণ সভ্যতাও এক রকমের শিকল। ইচ্ছাগুলোকে বেঁধে রাখে।

স্বামী, শশুড়বাড়ির সবাইকে যে খুশী রাখতে চায় বা ও নিজে যে খুব বাচ্চা চায় এমন নয়। বাচ্চার জন্যে হুজুরের কাছে আসতে হবে, এমন অদ্ভুত সিদ্ধান্ত কেউ ওর উপরে চাপিয়ে দিবে আর তা সে মেনে নিবে এতোটা দুর্বল ব্যক্তিত্বের ও নয় সে।
তাহলে দিশা কেন এসেছে?

দিশার বিয়ে হয়েছে প্রায় একযুগ। এতদিনেও তার কোন সন্তান হয়নি। দিশা আর দিয়া দুই বোন, জমজ। দিয়া নিজেই পালিয়ে বিয়ে করে ফেলেছিল কলেজ থাকতেই। ওর বাচ্চা এখন হাই স্কুলে পড়ে। দিয়ার বিয়ের পরে থেকে ওদের মা দিশাকে নিয়ে একরকম মানসিক চাপে থাকত। খুবই স্বাভাবিক, ওদের বাবা নেই। মা একাই বা আর মায়ের দায়িত্ব পালন করছে। তাই অনার্স পরীার পরে যখন মা বিয়ে ঠিক করলো, দিশা আর আপত্তি করেনি।

যেহেতু বাবা মারা যাওয়ার পরে মা ভয়ংকর আর্থিক কষ্টের মধ্যে দিয়ে গেছে তাই দিশার বিয়ের জন্যে মা পাত্রের যোগ্যতা হিসাবে প্রথমেই আর্থিক স্বচ্ছলতাকেই দেখেছে। হ্যাঁ, ডিউকরা ধনী। ডিউক দিশার স্বামী। পরিবারিক ভাবেই ওরা ধনী তার উপরে আবার ডিউক উচ্চ শিত। এবং মাল্টিন্যাশনাল কোম্পানির বেশ উঁচুর দিকে পোস্টে চাকরি করে। বাংলাদেশে চাকরি করে যে এত বেতন পাওয়া যায় তা দিশার কল্পনার বাইরে ছিল। বিয়ের জন্যে এমন পাত্র পাওয়া সৌভাগ্যের।

পাত্র পরে কাছে দিশার যোগ্যতা হচ্ছে, সে দেখতে সুন্দর এবং প্রায় দরিদ্র পরিবারের মেয়ে। সবাইকে ওর শাশুড়ি তাই বলে, আমরা তো টাকা পয়সা চাইনি। আল্লাহার রহমতে আমাদের তো কম নেই। একটা ভালো মেয়ে চেয়েছিলাম,একটু দেখতে ভালো, গরিব তাতে কি ! আমাদের কাছে টাকা পয়সা কোন বিষয় না। কথাগুলো বলার সময় মহিলার মুখে আত্মতৃপ্তির সুখ চকচক করতো। আর দিশা অবাক হয়ে ভাবত, ভদ্রতা বোধ সম্পন্ন মানুষ এতো কম কেন দুনিয়ায় !

ডিউক দিশার থেকে প্রায় দশ বছরের বড়। কিন্তু ডিউকে দেখে বুঝা যায় না। বেশ মানিয়ে গেছে দিশার সঙ্গে। ডিউক পাত্র হিসাবে আদর্শ। বেশ ধার্মিক পরিবার। ডিউক লম্বা, ফর্শা, ফ্রেঞ্চ কাট দাড়ি বলে না কি বলে কে জানে! গোফ নেই কেবল থুতনিতে কায়দা করে দাড়ি রেখেছে। নিয়মিত ট্রিম করে সেই দাড়ি, অধুনিক কাটের স্যুট পরে (সুন্নাহ মেনে গোড়ালির উপরে প্যান্ট বা পাজামা পরে) সুন্নাহ এবং শরিয়াহ মেনে চলে ওরা। ওদের বাড়ির মেয়েরা সব খাটি সোনার গয়না পরে এবং হিজাব ছাড়া বাড়ি থেকে বের হয় না। কেবল দিশাই হিজাব পরে না। এই নিয়ে ডিউক বেশ রাগ করে, এমন কি দিশার পরিবার নিয়েও কথা বলে। তবু দিশা ওর নিজের মতই থাকে।

বিয়ের কয়েক বছর পরেও যখন ওদের বাচ্চা হচ্ছিল না তখন অবস্থাটা এমন হলো যেন দিশারই সব দোষ। প্রথম প্রথম বাড়ির সবাই আকারে ইঙ্গিতে ব্যাপারটা বুঝাত। শেষের দিকে আর আড়াল টাও থাকলো না। শাশুড়ি সরাসরি ওকে বলেই দিলো, তুমি নামাজ পরো না, পর্দা করোনা, স্বামীর দিকে মন নেই তোমার, তাই তোমার উপরে আল্লাহর অভিশাপ।

দিয়া জবাবে বলেছে, আপনার ছেলে তো নামাজ কালাম করে তা হলে ?

তুমি খুব বেয়াদব। বাবা ছাড়া মেয়ে, আদব কায়দা শিখোনি। তোমার মা তোমায় সঠিক শিা দিতে পারেনি।

অনেক অনেক কথা কাটাকাটি, রাগ করে দুই তিনদিন না খেয়ে থাকা, মাঝে মধ্যে মায়ের বাড়ি কয়েকদিনের জন্যে চলে যাওয়া,খুব হয়েছে এসব। ডিউক আদর্শ ছেলে। মায়ের উপরে কথা বলবে না। রাত ঠিক ১১টায় ঘুমাতে হবে, ভোরে ফজর নামাজ পরতে হবে। খাওয়া মাপা, কথা মাপা, হাসা মাপা, চলা মাপা। সব কিছু তার ভালো হতে হবে। এমন কি দিশার প্রতিও সে যথেষ্ট যত্নবান। ইসলামে আছে স্ত্রী হচ্ছে শ্রেষ্ঠ সম্পদ। ডিউক এক ওয়াক্ত নামাজ কাযা করেনি তাহলে সম্পদের অবহেলা করে কি করে !

দিশা বারবার বলেছে, চল আমরা ভালো একজন ডাক্তারের কাছে যাই। ডিউককে অনুরোধ করেছে, একসঙ্গে যেতে, ডিউক যাবে না। না না ছুতোনাতা। অথচ ওরা দেশে বা বিদেশে সব খানেই ডাক্তার দেখাতে পারে। দিশার মা, বোন সবাই বলেছে, তোমরা ইন্ডিয়াতে যাও। পাশের দেশ কিন্তু ওদের চিকিৎসা আমাদের থেকে এগিয়ে। দিশা কান্না করতে করতে ডিউওকে বলছে, চলো আমরা যাই।

ডিউকের জবাব হচ্ছে ‘আল্লাহর উপরে ভরসা রাখো, আল্লাহ যেদিন চাইবেন সেদিনই আমাদের সন্তান হবে। ‘তুমি নামাজ পর দিশা। আল্লাহর কালামের উপরে তো কিছু নাই। আল্লাহর উপরে ভরসা রাখ।’

দিশা অপোরত মহিলাদের মুখের দিকে তাকায়। সবার চেহারায় একরকম মিল আছে। অজ্ঞতা, অসহায়ত্ব আর অশিার মিল।

‘আম্মা, এবার আপনি আসুন’

দিশাকে ভেতরে নিয়ে যেতে এসেছে এক অল্প বয়স্ক ছেলে। উজ্জ্বল শ্যমলা, গোলগাল মত ২০/২২বছরের হবে ছেলেটা। চোখে সম্ভবত সুরমা লাগিয়েছে, ছেলেটা সারাণ মাটির দিকে তাকিয়ে আছে। ছোট্ট একটা উঠোনের মত জায়গা পার হয়ে অন্য আরেকটা তিন তলা বিল্ডিং এ ওরা চলে আসে। কলাপসিবল গেট, তারপরে সিঁড়ি। ঢুকতেই কেমন গা ঝিমঝিম করা একটা আতরের গন্ধ।

ডিউক অনেক ব্যস্ত থাকে। বিয়ের প্রথম প্রথম দিশার ব্যাপারে স্বাভাবিক ভাবেই বেশ আগ্রহ ছিল। আজকাল অনেক ব্যস্ত থাকে। দিশা ডিউওকের বিরুদ্ধে ঠিক অভিযোগ করতে পারবে না, আবার ওর খুব একাও লাগে। ডিউক থেকেও যেন নেই। কাউকে ও অনুভ‚তিগুলো বুঝিয়ে বলতেও পারে না। তা সম্ভব নয়। এই যে বাড়ির সবাই এতো বাচ্চার জন্যে অস্থির এই নিয়েও ডিউকে কখনো চিন্তিত হতে দেখেনি দিশা। আল্লাহর উপরে আগাদ বিশ্বাস তার। দিশার কখনো কখনো মনেহয় গভির ভাবে বিশ্বাস করতে পারাটাও একটা কঠিন একটা বিষয়। দিশা পারে না এমন গভীরভাবে বিশ্বাস করতে। সবেতেই ওর দ্বিধা। বিশ্বাস মানুষকে শান্তি দেয়। যখন কেউ কারো বা কোন কিছুর উপর সম্পূর্ণ নির্ভর করতে পারে তখন তারচে সুখী মানুষ নেই। কিন্তু তা হতে হবে সত্যিকারের বিশ্বাস। আর পরম বিশ্বাসের জন্যে মানুষকে অন্ধ হতে হবে। জ্ঞানহীনের অন্ধত্ব।

দিশা কেন পারে না বিশ্বাস করতে? কেন পারে না নির্ভর করতে? হুজুরের কাছে এসেছে ও বিশ্বাস থেকে নয়। অভিমান থেকে, ােভ থেকে।প্রতিশোধ নেয়ার অদম্য এক ইচ্ছা, কার উপর প্রতিশোধ? কিসের প্রতিশোধ? জানে না দিশা। কিন্তু ভিতরে নিজেকে শেষ করার তীব্র বাসনা।

ওর এই দিনের পরে দিন একা অনুভব করা কখনোই ডিউক বুঝতে চায়নি। কখনো বলেনি আমি আছি তোমার সাথে। অজানা, মহাশক্তির উপর না, দিশা নির্ভর করতে চেয়েছিলো ডিউকের উপর। গভীর ভাবে বিশ্বাস করতে চেয়েছে ডিউককে। যেমনভাবে ডিউক বিশ্বাস করে আল্লাহর উপরে। বিশ্বাস করে বা বিশ্বাস করতে চায়। আজকাল উচ্চবিত্ত এবং উচ্চ শিতিদের ধর্মের উপরে অতিরিক্ত অনুরাগ দেখা যায়।এরা কথাও বলে ইংরেজি আর আরবি শব্দ মিলিয়ে। যখন ভাষা বদলে যায় তখন মানুষের চিন্তাও বদলে যায়। চিন্তা মানে দর্শন। খিচুরি ভাষার ফলাফল হবে খিচুরি দর্শন।

চোখের নিমিশেই যেন চারটা মাস উড়ে চলে গেল। দিশা এখন চার মাসের গর্ভবতী। বাড়ির সবাই অনন্দিত। বুজুর্গ হুজুরের তদবির ফলপ্রসূ হয়েছে।নতুন বংশধর আসছে পরিবারে। আল্লাহতালার অসীম করুণায়, হুজুরের উসিলায় মা হতে যাচ্ছে দিশা। দিশার শাশুড়ি প্রতিটা দমে দমে আল্লাহর কাছে শুকরিয়া আদায় করেন।

দিশা ডিউককে দেখে। ওর ভাবনাগুলো বুঝতে চেষ্টা করে। একজন শিতি মানুষের পে তো অজানা নয় যে সন্তান জন্মের জন্যে একটা নির্দিষ্ট প্রক্রিয়ার মধ্যে যেতে হবে। প্রকৃতির একটা নিখুঁত অংক আছে। ডিউক ও নিশ্চয়ই জানে। পানি পরা, ঝারফুকে বা ডিম পরা, বা আপেল পরা খেয়ে কখনো বাচ্চা হওয়া সম্ভব নয়। নিশ্চয়ই জানে। তাহলে কি দাঁড়ালো ? এই ধর্ম বিশ্বাস একরকম ভণ্ডামি। জেনে বুঝেও চোখ বন্ধ করে থাকা। সারাটা জীবন কাটবে মিথ্যা জেনেও গভীর বিশ্বাসের ভান করে করে? কেন? কি পাবে তাতে? নিজের মন তো জানেই কোনটা সত্য, কোনটা মিথ্যা।এখন তো নিজের বিশ্বাসের অভিনয়ে নিজেই জ্বলবে জীবনভর।

দিশার মনের গভীরে কোথাও খুব সু একটা আনন্দ অনুভব করে। প্রতিশোধ নেয়ার আনন্দ। আনন্দ বা সার্থকতা কখনো কখনো কষ্ট হয়ে আসে কেন? চোখের জল ও খুব অদ্ভুত জিনিস। আনন্দেও ঝরে, কষ্টেও ঝরে।

দিশা বুকে পাথার চাপা দিয়ে দিনরাত কাটাচ্ছে। মাঝে মাঝে পৃথিবীর সমস্ত কিছুই তুচ্ছ মনে হয়। সমস্ত কিছু ছেড়ে দূরে কোথাও চলে যেতে ইচ্ছে করে। আজকাল পেটের মধ্যে অন্য একজনের অস্তিত্ব টের পায় দিশা। খুব মৃদু যেন টোকা দিচ্ছে এমন ভাবে নড়চড়ে উঠে শিশুটা। দিশা যখন শাওয়ার নেয়, তখন বাথরুমের আয়নায় খুটিয়ে খুটিয়ে দেখে নিজেকে।তলপেট ইসৎ স্ফিত হতে শুরু করেছে। চোখ বন্ধ করে পেটে হাত রেখে বাচ্চাটাকে অনুভব করতে চায়। মনেমনে কথা বলে, তুমি আমার সন্তান, শুধু আমার। আমার রক্ত, মাংসে আমার শরীরে তোমার জন্ম হচ্ছে। তোমায় আমি জন্মদিচ্ছি। তুমি শুধুই আমার। শুনতে পাচ্ছো তুমি? তোমার বাবাকে তা জানার প্রয়োজন নেই, কারণ তোমার বাবা আর মায়ের ভালোবাসার ফলে তোমার জন্ম নয়। তুমি যখন আমার মধ্যে আসো তখন আমি অবশ, অচেতন । না,প্রতারনায় তোমার জন্ম না। আমি তো জানতাম, কেবল বিশ্বাসে প্রাণের জন্ম হয় না। আমি চেয়েছি বলেই তুমি এসেছো। তুমি কি বুঝতে পারছো আমার কথা? দিশা মনে মনে কথাগুলো বলে, দুই চোখ বেয়ে অঝোরে জল গড়িয়ে পড়ে।

 

Comments
সোফিয়া হায়াত, ভারতের খুব পরিচিত মডেল, বিতর্কিত শিল্পী এবং চলচ্চিত্রের অভিনেত্রী। ছবি : ইন্টারনেট
ঘটনা রটনা6 hours ago

আমার সামনেই যৌনকর্মীর সঙ্গে শারীরিক সম্পর্কে লিপ্ত হন তিনি : সোফিয়া হায়াত

বাপ্পী চৌধুরী ও বিদ্যা সিনহা সাহা মিম। ছবি : সংগৃহীত
ঢালিউড6 hours ago

ফায়দা লোটার জন্য ইন্ডাস্ট্রিকে ব্যবহার বন্ধ করতে হবে : বাপ্পী চৌধুরী

শাবনূর (আসল নাম কাজী শারমিন নাহিদ নূপুর), বাংলাদেশি চিত্রনায়িকা। ছবি : সংগৃহীত
ঢালিউড7 hours ago

একটা কালো ছায়ার জন্য পুরস্কারগুলো আমার হাত ছাড়া গেছে : শাবনূর

আসিফ আকবর, বাংলাদেশি সঙ্গীতশিল্পী। ছবি : ইউটিউব থেকে নেওয়া
ঘটনা রটনা8 hours ago

আসিফিয়ানদের অন্তরে আগুন লাগিয়ে দিল ধ্রুব মিউজিক স্টেশন

নুসরাত জাহান ও মৌসুমী হামিদ। ছবি : ইন্টারনেট
ঘটনা রটনা8 hours ago

নুসরাত জাহানের সঙ্গে বদল হচ্ছেন মৌসুমী হামিদ

কন্যা সন্তানের মা হলেন বলিউড অভিনেত্রী এশা দেওল
ঘটনা রটনা9 hours ago

কন্যা সন্তানের মা হলেন বলিউড অভিনেত্রী এশা দেওল

জাগো বাংলাদেশ শিশু-কিশোর সম্মাননা গ্রহণ করছেন প্রতিষ্ঠানটির প্রতিষ্ঠাতা ও পরিচালক মোস্তফা কামাল খান সোহেল
রকমারি9 hours ago

জাগো বাংলাদেশ শিশু-কিশোর সম্মাননা পেয়েছে ‘মডেল হান্টার বিডি’

সিইসি, দয়া করে ‘সরকারী মাল দড়িয়া মে ঢাল’বেন না | মোমিন মেহেদী
মতামত9 hours ago

সিইসি, দয়া করে ‘সরকারী মাল দড়িয়া মে ঢাল’বেন না | মোমিন মেহেদী

আজ তপন বাগচী’র ৫০তম জন্মদিন
জন্মদিন23 hours ago

আজ তপন বাগচী’র ৫০তম জন্মদিন

চোখের যত্ন : কন্টাক্ট লেন্স ব্যবহারে বাড়তি সতর্কত‌া জরুরি
ফ্যাশন2 days ago

চোখের যত্ন : কন্টাক্ট লেন্স ব্যবহারে বাড়তি সতর্কত‌া জরুরি

Advertisement

বিনোদনের সর্বশেষ খবর

সোফিয়া হায়াত, ভারতের খুব পরিচিত মডেল, বিতর্কিত শিল্পী এবং চলচ্চিত্রের অভিনেত্রী। ছবি : ইন্টারনেট সোফিয়া হায়াত, ভারতের খুব পরিচিত মডেল, বিতর্কিত শিল্পী এবং চলচ্চিত্রের অভিনেত্রী। ছবি : ইন্টারনেট
ঘটনা রটনা6 hours ago

আমার সামনেই যৌনকর্মীর সঙ্গে শারীরিক সম্পর্কে লিপ্ত হন তিনি : সোফিয়া হায়াত

সংবাদমাধ্যমের কাছে নতুন তথ্য প্রকাশ করেছেন ভারতের খুব পরিচিত মডেল, টিভি অনুষ্ঠানের বিতর্কিত শিল্পী এবং চলচ্চিত্রের অভিনয়শিল্পী সোফিয়া হায়াত (sofia...

বাপ্পী চৌধুরী ও বিদ্যা সিনহা সাহা মিম। ছবি : সংগৃহীত বাপ্পী চৌধুরী ও বিদ্যা সিনহা সাহা মিম। ছবি : সংগৃহীত
ঢালিউড6 hours ago

ফায়দা লোটার জন্য ইন্ডাস্ট্রিকে ব্যবহার বন্ধ করতে হবে : বাপ্পী চৌধুরী

গত শুক্রবার দেশের ১০৯টি সিনেমা হলে মুক্তি পেয়েছে মনতাজুর রহমান আকবর পরিচালিত ও চিত্রনায়ক বাপ্পী চৌধুরী অভিনীত ‘দুলাভাই জিন্দাবাদ’। ছবিতে...

শাবনূর (আসল নাম কাজী শারমিন নাহিদ নূপুর), বাংলাদেশি চিত্রনায়িকা। ছবি : সংগৃহীত শাবনূর (আসল নাম কাজী শারমিন নাহিদ নূপুর), বাংলাদেশি চিত্রনায়িকা। ছবি : সংগৃহীত
ঢালিউড7 hours ago

একটা কালো ছায়ার জন্য পুরস্কারগুলো আমার হাত ছাড়া গেছে : শাবনূর

৯০ দশক থেকে এ পর্যন্ত আসা চিত্র তারকাদের মধ্যে সবচেয়ে জনপ্রিয় চিত্রতারকা হিসেবে যাকে বিবেচনা করা হয় তিনি আর কেউ...

আসিফ আকবর, বাংলাদেশি সঙ্গীতশিল্পী। ছবি : ইউটিউব থেকে নেওয়া আসিফ আকবর, বাংলাদেশি সঙ্গীতশিল্পী। ছবি : ইউটিউব থেকে নেওয়া
ঘটনা রটনা8 hours ago

আসিফিয়ানদের অন্তরে আগুন লাগিয়ে দিল ধ্রুব মিউজিক স্টেশন

আসিফ আকবর ফেসবুক লাইভের মাধ্যমে সম্প্রতি ভক্তদের ধ্রুব মিউজিক স্টেশনের একটি অসাধারন উদ্যোগের ঘোষণা। আর তা হল ট্র্যাকের ক্যারাওকে ভার্সন...

নুসরাত জাহান ও মৌসুমী হামিদ। ছবি : ইন্টারনেট নুসরাত জাহান ও মৌসুমী হামিদ। ছবি : ইন্টারনেট
ঘটনা রটনা8 hours ago

নুসরাত জাহানের সঙ্গে বদল হচ্ছেন মৌসুমী হামিদ

অঙ্কুশ হাজরা ও নুসরাত জাহানের ‘বলো দুগ্গা মাঈকি’ ছবিটি এবার সাফটা চুক্তির আওতায় মুক্তি পেতে যাচ্ছে বাংলাদেশে। ছবিটি আনছে ‘তিতাস...

কন্যা সন্তানের মা হলেন বলিউড অভিনেত্রী এশা দেওল কন্যা সন্তানের মা হলেন বলিউড অভিনেত্রী এশা দেওল
ঘটনা রটনা9 hours ago

কন্যা সন্তানের মা হলেন বলিউড অভিনেত্রী এশা দেওল

কন্যা সন্তানের মা হলেন বলিউড অভিনেত্রী এশা দেওল। সোমবার সকালে মুম্বইয়ের হিন্দুজা হাসপাতালে জন্ম নেয়া নতুন এই অতিথিকে স্বাগত জানিয়েছেন...

আলিয়া ভাট, ব্রিটিশ-ভারতীয় চলচ্চিত্র অভিনেত্রী। ছবি : ইন্টারনেট আলিয়া ভাট, ব্রিটিশ-ভারতীয় চলচ্চিত্র অভিনেত্রী। ছবি : ইন্টারনেট
ঘটনা রটনা2 days ago

এক গানে শুটিংয়ে ১৪ বার অজ্ঞান হলেন আলিয়া ভাট

সম্প্রতি মুক্তির পাঁচ বছর পূর্ণ করেছে ‘স্টুডেন্ট অব দ্য ইয়ার’ ছবিটি। এ উপলক্ষে ছবির প্রধান তিন তারকা বরুণ ধাওয়ান, আলিয়া...

আয়েশা মৌসুমী, সঙ্গীত শিল্পী। ছবি : আল আমিন লিয়ন আয়েশা মৌসুমী, সঙ্গীত শিল্পী। ছবি : আল আমিন লিয়ন
মৌচাকে ঢিল2 days ago

পোশাক-পরিচ্ছদ কী হবে, দাঁড়িয়ে গান করব না বসে গান করব- এসব কি লেখার বিষয় হলো : আয়েশা মৌসুমী

সংগীতশিল্পী আয়েশা মৌসুমী। রিয়েলিটি শো পাওয়ার ভয়েস থেকে সংগীতাঙ্গনে আগমন তার। ব্যস্ত আছেন টিভি লাইভ, স্টেজ শো ও নতুন গান...

সর্বাধিক পঠিত